অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, বুধবার, ২২শে সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭ই আশ্বিন ১৪২৮


ভোলায় বিধি নিষেধ অমান্য করায় ১৬ জনের কারাদণ্ড ও ৭৭ জনের জরিমানা


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৯শে জুলাই ২০২১ রাত ১২:২৮

remove_red_eye

১৩৫

                                   
       


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক : ভোলায় করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারন করায় বুধবার লকডাউনের ষষ্ঠ দিনে নৌবাহিনীর সদস্যদের নিয়ে সকাল থেকে ক্রাস প্রোগ্রাম শুরু করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। জেলা শহরের সদর রোড, নতুনবাজার, কাচাবাজার, কালীনাথ রায় বাজার, যুগিরঘোলসহ ইলিশা সড়কে এই অভিযান চালানো হয়। এ সময় ১৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদÐ ও ৭৭ জনকে জরিমানা করা হয়েছে । নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেদোয়ানুল ইসলাম জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে তাদের কঠোর হতে  হয়েছে। তার পরও অনেকে বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বেড় হয়ে বাজারে ঘোরাঘুরি করছে। অপরদিকে ২২ জনের নৌবাহিনীর বহর দুই ভাগে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে ওই ক্রাস প্রোগামে অংশ নেয়। এর মধ্যে এক গ্রæপ শহরে। অপর গ্রæপ ছিল মহফস্বল এলাকায়। এমন অভিযানকালে রাস্তায় সব ধরনের যানবাহন ফিরেয়ে দেয়া হয়। একই সঙ্গে রাস্তায় কোন মানুষকে প্রবেশ করতে দেয়া হয় নি। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিমরান হোসেন জানান, যেখানে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে ১৭৬ জন। এমন পরিস্থিতিতে ক্রাস প্রোগ্রাম নিতে বাধ্য হচ্ছে প্রশাসন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদার জানান , প্রতিদিন নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেটদের নিয়ে ১২ থেকে ১৫টি মোবাইল কোর্ট টিম মাঠে অবস্থান কাজ করছে। র‌্যাব, পুলিশের সঙ্গে যোগ হয়েছে নৌ-বাহিনীর সদস্যরা।
জেলা সদরে বুধবার দিনভর অভিযান চালিয়ে ১৫টি মোবাইল কোর্টে ৯০টি মামলায় ৯৩ জনের মধ্যে ৭৭ জনকে ৭৯ হাজার ৫৫০ টাকা জরিমানা ও ১৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদÐ দেয়া হয়েছে। গত ১ জুলাই থেকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত ২২৯৮ জনকে জরিমানা ও ১১০ জনকে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।