অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ২৪শে জুলাই ২০২১ | ৯ই শ্রাবণ ১৪২৮


লকডাউনেও ফেরি-ট্রলারে ভোলায় আসছে শত শত মানুষ


অচিন্ত্য মজুমদার

প্রকাশিত: ১লা জুলাই ২০২১ সন্ধ্যা ০৭:০৮

remove_red_eye

৫৪

অচিন্ত্য মজুমদার :: ভোলায় করোনা সংক্রামন প্রতিরোধে কঠোর বিধিনিষেধের তোয়াক্কা না করে লক্ষ্মীপুর থেকে বৃহস্পতিবার ফেরি ও ট্রলারে করে শত শত যাত্রী ইলিশাঘাট দিয়ে নদী পথে ভোলায় প্রবেশ করে। তবে এসব স্থানে মানা হচ্ছে না কোনো ধরনের স্বাস্থ্যবিধি। যে যেভাবে পারছেন গাদাগাদি করে পারাপার হচ্ছেন। তবে গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় পথে পথে সীমাহীন ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন তারা। এদের অনেকেই পায়ে হেটে আবার কেউ কেউ রিকশা কিংবা ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে করে গন্তব্যে যাচ্ছেন। 
 
স্থানীয়রা জানান, সকাল সাড়ে ১০টায় লক্ষ্মীপুর মজু চৌধুরী ফেরিঘাট থেকে কলমিলতা নামে একটি ফেরি ৫ শতাধিক যাত্রী নিয়ে ভোলার ইলিশা ফেরিঘাটে এসে পৌঁছায়। এদের অধিকাংশকেই মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। সরকারি ছুটির ঘোষণায় রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে তারা স্বজনের কাছে ফিরছেন বলে জানান। 
 
লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরীর ঘাট থেকে ফেরিতে যাত্রী উঠা বন্ধ হলে লকডাউনের বিধিনিষেধ নিশ্চিত করা সম্ভব বলে জানান ভোলা নৌ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ শাহজালাল। এছাড়া নদীতে পুলিশের টহল অব্যাহত রয়েছে। এরপরও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ট্রলারে যাত্রী পারাপার করছে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।
 
এদিকে গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় ভোলা বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল বাস স্ট্যান্ডে অটোরিক্সা ও ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে গন্তব্যে যাচ্ছে এসব মানুষ। এতে করে যে কোন সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। সব বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বাধ্য হয়ে এমন ঝুঁকি নিয়ে বাড়ি ফিরছে বলে জানান যাত্রীরা। 
 
অপরদিকে ভোলা শহরে ঔষধ, মুদি ও কাঁচা বাজার ছাড়া সব দোকান বন্ধ থাকলেও মানুষের রাস্তাঘাটে চলাফেরা ছিলো চোখে পড়ার মতো। রিক্সা ও অটোতে মানুষের চলাফেরা ছিলো স্বাভাবিক। 
 
ভোলা  জেলা প্রশাসক  তৌফিক ই-লাহি চৌধুরী  জানান, লকডাউন বাস্তবায়নে সকাল থেকেই ভোলার ৭টি উপজেলার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। আমরা লক ডাউন এর আগে  জনগণকে সচেতন করেছি লকডাউন মানার জন্য। এখন বিনা প্রয়োজনে রাস্তায় বের হলেই কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। প্রথম দিনেই বিধিনিষেধ অমান্য করায় ২ জনকে কারাদণ্ড দেয়ার পাশাপাশি ১০৪ জনকে অর্থদণ্ড করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।