অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২৫শে জুলাই ২০২১ | ১০ই শ্রাবণ ১৪২৮


মা-বাবাহীন শিশুর ভাঙা হাতের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন লালমোহনের ইউএনও


লালমোহন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬ই জুলাই ২০২১ রাত ০৯:২৭

remove_red_eye

১৪৩



লালমোহন প্রতিনিধি : ভোলার লালমোহনে মা-বাবাহীন ৫ বছর বয়সী মো. আব্দুল্লাহ নামের এক শিশুর ভাঙা হাতের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল-নোমান। গত ২০ দিন আগে উপজেলার রমাগঞ্জ ইউনিয়নের রায়চাঁদ এলাকার খালা ইয়ানূরের ঘরের চৌকি থেকে পরে হাত ভেঙে যায় ওই শিশুর। শিশু আব্দুল্লাহর বাবা-মা না থাকায় এবং নিজেও অসহায় হওয়ায় তার খালা স্থানীয় কবিরাজের কাছ থেকে চিকিৎসা নেন। তবে এতে কোনো উন্নতি না হয়ে আরও অবনতি হয়।
পরে স্থানীয় সাইদুর রহমান ও মো. সাগর নামের দুই যুবক শিশু আব্দুল্লাহকে নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ইউএনওর কাছে আসেন। তখন তিনি ওই শিশুর অসহায়ত্বের অবস্থা বিবেচনা করে শিশুটির সম্পন্ন চিকিৎসার দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। শিগগিরই তাকে উন্নতমানের চিকিৎসা দেয়ার আশ্বাস দেন ইউএনও আল-নোমান। এসময় শিশু আবদুল্লাহকে নতুন জামা-কাপড়ও কিনে দেন তিনি। ইউএনওর এমন মানবিক কার্যক্রমে সন্তুষ্ট শিশু আবদুল্লাহর সাথে আসা লোকজন।
এব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আল-নোমান বলেন, দুপুরের দিকে কয়েকজনে মিলে একটি ভাঙা হাতের শিশুকে নিয়ে আমার অফিসে আসে। পরে তাদের সাথে কথা বলে জানতে পারি, শিশুটির চার মাস বয়সে তার বাবা মারা যান। এরপর মায়েরও অন্যত্র বিয়ে হয়ে যায়। এখন সে তার খালার সাথে থাকছে। ওই শিশুর খালার অবস্থাও ভালো না। তাই আমার কাছে এসেছে চিকিৎসায় সহায়তার জন্য। এরপর শিশুটির এমন করুন অবস্থা দেখে তার হাতের সম্পন্ন চিকিৎসা করাতে যত খরচ হয় তার দায়িত্ব গ্রহণ করি।