অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ১৭ই এপ্রিল ২০২১ | ৪ঠা বৈশাখ ১৪২৮


ভোলায় মাছ শিকার করায় ১৩৭ জেলের জেল-জরিমানা


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১ই মার্চ ২০২১ রাত ১২:১১

remove_red_eye

৮৬

বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক \ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভোলার সাত উপজেলার মেঘনা-তেঁতুরিয়া নদীতে ইলিশ শিকার করায় ১০ দিনে ১৩৭ জন জেলের জেল ও জরিমানা করা হয়েছে। এসময় জেলেদের কাছ থেকে ১ হাজার ৯৫২ কেজি ইলিশ ও ২ লাখ ৮৩ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। এছাড়াও ৪৩ টি অবৈধ বেহুন্দি জাল, ১৫ টি চর ঘেরা ও ২২ টি মশুরি জাল জব্দ করা হয়। বুধবার দুপুর ১২ টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এসএম আজহারুল ইসলাম।
তিনি জানান, গত ১ মার্চ থেকে ১০ মার্চ বুধবার দুপুর ১২ টা পর্যন্ত ভোলার সাত উপজেলার মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করায় ১৩৭ জেলেকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে ৯৪ জন জেলেকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদি কারাদন্ড ও ৪৩ জনের কাছ থেকে ২ লাখ ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করে ছেড়ে দেওয়া হয়। জব্দকৃত জাল প্রশাসনের উপস্থিতিতে আগুনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করা এবং জব্দকৃত জাল স্থানীয় এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়াও জব্দকৃত ট্রলার ও নৌকা নিলাম দেওয়া হয় ১ লাখ ৩৬ হাজার টাকা।
তিনি আরো জানান, মৎস্য সম্পদ রক্ষায় মৎস্য বিভাগ কোস্টগার্ড, পুলিশ ও নৌ পুলিশ নিয়ে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।  এছাড়াও নিষেধাজ্ঞার সময় ভোলার সাত উপজেলায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ৩৮ জেলের মধ্যে ৭৮ হাজার জেলেকে ৪০ কেজি করে ৪ চার মাস খাদ্য সহায়তার চাল বিতরণ করা হবে।
উল্লেখ্য, গত ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ভোলা জেলার ১৯০ কিলো মিটার নদী সীমানায় ইলিশের আভ্যয়শ্রম হওয়া সব ধরনের মাছ শিকার, মজুদ, বাজারজাত, বিক্রি ও পরিবহনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার।