অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, মঙ্গলবার, ৭ই ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | ২৫শে মাঘ ১৪২৯


ভোলায় চক্ষুসেবা নিশ্চিত করতে জরুরী সভা


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২২শে ডিসেম্বর ২০২২ রাত ০৯:২৭

remove_red_eye

৩১

বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক: ভোলার মানুষের চক্ষুসেবা নিশ্চিত করতে নিজাম-হাসিনা ফাউন্ডেশন হাসপাতাল তাঁদের নিজস্ব মিলনায়তনে এক সভা করেছে। বৃহষ্পতিবার দুপুরে ঘন্টাব্যপী সভায় জেলা চক্ষু স্বাস্থ্য পরিচালনা কমিটির সদস্য, চিকিৎসক, নার্স ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ভোলা জেলা সিভিল সার্জন ডা. কেএম শফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, নিজাম হাসিনা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মো নিজাম উদ্দিন, ফাউন্ডেশন হাসপাতালের ব্যবস্থাপণা পরিচালক ডা.আব্দুল মালেক, বিএমইর পরিচালক সাবেক সিভিল সার্জন এটিএম মিজানুর রহমান, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয়ের গবেষণা কর্মকর্তা নুরে আলম সিদ্দিকী,  ফাউন্ডেশনের চক্ষু হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. এমআর খান, চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শোভন কুমার বসাক প্রমূখ।

ডা:আব্দুল মালেক বলেন,ভোলা জেলা চক্ষুস্বাস্থ্য পরিচালনা কমিটি  জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে চক্ষু সেবার বর্তমান অবস্থা, সুযোগ, প্রতিকুলতা এবং সরকারকর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপসমূহ বাস্তবায়নের পাশাপাশি সরকারি বেসরকারি কার্যক্রম সমন্বয় করছে। চক্ষুরোগীদের নিজাম-হাসিনা চক্ষু হাসপাতালে রেফার করা হচ্ছে। এখানের বহি: বিভাগে ইতোমধ্যে বিনামূল্যে  ৪লাখ ১৪ হাজার ৪৪২ জন রোগীর  চক্ষু চিকিৎসাসেবা এবং ৭৫ হাজার ৩১৩ জন রোগীর চোখে অস্ত্রপচার হয়েছে। বৃহত্তর ভোলা জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের দরিদ্র অসহায় রোগীদের কথা চিন্তা করে এখানে খুব শীঘ্রই নিজাম-হাসিনা ফাউন্ডেশন হাসপাতাল থেকে একটি মিনিবাস সার্ভিস চালু করার পরিকল্পনা গ্রহন করেছে।

ভোলা সিভিল সার্জন কেএম শফিকুজ্জামান উপস্থিত চিকিৎসক, নার্স এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে বলেন, ভোলার  একজন চক্ষু রোগীও যেনো চিকিৎসার বাইরে না থাকে। চক্ষু রোগীদের সরকারি সেবার অনুপস্থিতিতে বিশেষায়িত চক্ষু হাসপাতাল নিজাম-হাসিনা চক্ষু হাসপাতালে রেফার করা দরকার।