অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২২শে মে ২০২২ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯


অবশেষে জুটি ভাঙলেন তাইজুল


বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ই এপ্রিল ২০২২ বিকাল ০৪:১০

remove_red_eye

৩৯

মুল্ডারকে বোল্ড করে জুটি ভেঙেছেন তাইজুল ইসলাম। ৭৭ বলে ৩৩ রান করেন তিনি।  ভেরিয়েন্নের সঙ্গে ০ রানে অপরাজিত থেকে দিন শুরু করেছিলেন। ভেরিয়েন্নে ফিরলেও মুল্ডার ছিলেন অবিচল। নতুন ব্যাটসম্যান কেশব মহারাজকে দারুণ সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছিলেন এক প্রান্ত থেকে। মাত্র ১০০ বলে দুজনের জুটি থেকে আসে ৮০ রান। অবশেষে মুল্ডারকে আউট করে সেই জুটিকে আর এগোতে দেননি তাইজুল। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

দক্ষিণ আফ্রিকা: ৩৭৮/৬ (১১২ ওভার)

 

মহারাজের ফিফটি, বড় রানের পথে স্বাগতিকরা 

মিরাজকে লং অনে চার মেরে ৫০ বলে হাফ সেঞ্চুরির দেখা পান কেশব মহারাজ। ব্যাটিংয়ে এসে শুরু থেকেই তিনি দ্রুত রান তোলার চেষ্টায় আছেন। তাতে সফল এই অলরাউন্ডার। দ্রুত তুলে নেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফ সেঞ্চুরি। তার সঙ্গে ক্রিজে আছেন মুল্ডার। যদিও তিনি ধীরে ধীরে খেলার চেষ্টা করছেন। দুজনের ব্যাটে ভর করে বড় রানের দিকে ছুটছে দক্ষিণ আফ্রিকা। 

 

মহারাজের ক্যামিওতে দক্ষিণ আফ্রিকার ৩৫০

ভেরিয়ন্নে আউট হলেও সেটি টের পেতেই দেননি নতুন ব্যাটসম্যান কেশব মহারাজ। একশর বেশি স্ট্রাইকরেটে খেলছেন তিনি। ছয়-মেরে দ্রুত রান তোলার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। দলীয় সংগ্রহ এক লাফেই নিয়ে যান সাড়ে তিনশতে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩ চার ও ২ ছয়ে ৩৬ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন মহারাজ। তার সঙ্গে ৬৩ বলে ২৩ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন ভিয়ান মুল্ডার। 

খালেদের দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড ভেরিয়েন্নে 

 

কাইল ভেরিয়েন্নেকে বোল্ড করে সাজঘরে পাঠালেন খালেদ আহমেদ।  একটু আগেই উত্তেজনা ছড়িয়েছেল খালেদ-ভেরিয়েন্নের ব্যক্তিগত দ্বৈরথ। তাতে জিতলেন খালেদই। ড্রাইভ করতে চেয়েছিলেন ভেরিয়েন্নে, কিন্তু বল ব্যাট-প্যাড সব মিস করে ভেঙে দেয় উইকেট। গর্জে ওঠেন খালেদ। ৪৮ বলে ২২ রান আসে ভেরিয়েন্নের ব্যাট থেকে। 

 

 

বিপদ ছাড়াই দক্ষিণ আফ্রিকার ৩০০ 

তিনশ থেকে ২২ রান দূরে থেকে দিন শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকা। কোনো ধরনের বিপদ ছাড়াই দলটি তিনশ স্পর্শ করে। ৯৬.২ ওভারে খালেদকে চার মেরে ভেরিয়েন্নে দলীয় স্কোর তিনশ পার করেন। 

 

খালেদ -ভেরিয়েন্নের দ্বৈরথ

খালেদ আহমেদ-কাইল ভেরিয়েন্নের মধ্যে দ্বৈরথ। বল ডিফেন্স করে রান না নেওয়ার চেষ্টা করে দাঁড়িয়েছিলেন ভেরিয়েন্নে। তবুও বল ছুঁড়ে মারেন খালেদ। গ্লাভসে লাগে ভেরিয়েন্নের। একটু উত্তেজনা ছড়ায় তখন। খালেদ দুঃখ প্রকাশ করলেও ভেরিয়েন্নে মানতে নারাজ। ইয়াসির আলী এসে শান্ত করার চেষ্টা করেন। এরপর আম্পায়ারকে দেখা যায় মুমিনুল হকের সঙ্গে কথা বলতে। 

রিভিউ হারিয়ে বাংলাদেশের দিন শুরু 

দিনের শুরুতেই ভুল!খালেদকে দিয়ে বাংলাদেশ শুরু কর। ভালোভাবেই শুরু করেন খালেদ। ওভারের শেষ বল পায়ে লাগে ভেরিয়েন্নের। হাঁটুর একটু উপরে লাগলেও বল লেগ স্ট্যাম্প মিস করে। জোরালো আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। কিন্তু খালেদের সায় পেয়ে রিভিউ নেন মুমিনুল। কিন্তু বল বাইরে যাওয়াতে বাংলাদেশের পক্ষে আসেনি। গতকাল দিনের শুরুতে নিশ্চিত রিভিউ না নিয়ে ভুল করেছিল, আর আজ নিয়ে। 

প্রোটিয়াদের দ্রুত অলআউটের লক্ষ্যে মাঠে বাংলাদেশ 

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের দ্বিতীয় দিন শনিবার (৯ এপ্রিল) মাঠে নেমছে দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ। হাতে ৫ উইকেট ও স্কোরবোর্ডে ২৭৮ রান নিয়ে দিন শুরু করেছে প্রোটিয়ারা। ভেরিয়েন্নে ১০ ও মুডলার ০ রানে শুরু করেন। বাংলাদেশের লক্ষ্য একটাই, স্বাগতিকদের দ্রুত অলআউট করে কম রানে আটকে দেওয়া। 

 

আফসোস তাইজুলের 

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের প্রথম দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়তে দেয়নি বাংলাদেশ। ৫ উইকেট নিয়ে বোলিংয়ে বাংলাদেশ শক্তিশালী ও সুগঠিত। তবে স্কোরবোর্ডে ২৭৮ রান উঠায় খুশি নন ৩ উইকেট নিয়ে দিনের সেরা বোলার তাইজুল ইসলাম। একাদশে ফেরা এই স্পিনার মনে করেন, রান একটু বেশি হয়ে গেছে। স্বাগতিকদের আরেকটু চাপে রাখতে পারলে আরো ২-৩ উইকেট পেতে পারত বাংলাদেশ। 

ম্যাচ শেষে দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে তাইজুল বলেছেন, ‘আমরা যদি আরও একটু কমে (রান) তাদেরকে রাখতে পারতাম…হয়তো বা তাদের আরও একটু চাপটা বেশি হতো। চাপটা যদি বেশি হতো তাহলে হয়তোবা দুই-একটা উইকেট পড়ার সুযোগ ছিল। আমার মনে হয় একটু বেশি রান হয়ে গেছে। সামান্য একটু।’ 

প্রথম দিনে সমানে-সমান 

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের প্রথম দিন শেষে দুই দল সমানে-সমান রয়েছে। শেষ সেশনে তাইজুল-খালেদের কল্যাণে লড়াইয়ে ফেরে সফরকারীরা। দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ৫ উইকেটে ২৭৮ রান। ক্রিজে আছেন ভেরিয়েন্নে-মুডলার। পোর্ট এলিজাবেথের এই মাঠে প্রথম দিনের গড় স্কোর ৮ উইকেটে ২৭৪ রান।

বাংলাদেশের হয়ে ৩টি উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। আর ২ উইকেট নেন খালেদ আহমেদ। বৃষ্টির কারণে মাঝে ২৫ মিনিট খেলা না হলেও পুষিয়ে নেয় দিনের খেলা। পুরো ৯০ ওভারই খেলা হয়। নির্ধারিত সময়ের ১৫ মিনিট বেশি খেলা হয়।