অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২২শে মে ২০২২ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯


বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে ওমিক্রনের সাব-ভ্যারিয়েন্ট বিএ.২


বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৯শে মার্চ ২০২২ রাত ১১:৫৪

remove_red_eye

৩৫

করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রামক ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সাব-ভ্যারিয়েন্ট বিএ.২ এখন ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বে। ইউরোপ ও এশিয়ার অনেক দেশে এই সাব-ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণ চলছে। যুক্তরাষ্ট্রে এটি সংক্রমণের নতুন তরঙ্গ সৃষ্টি করতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ৮৬ শতাংশই বিএ.২ এর সংক্রমণের শিকার। এটি অত্যন্ত সংক্রামক ওমিক্রনের ভাই-বোন বিএ.১ ও বিএ.১.১ এর চেয়েও বেশি সংক্রামক। এখনও পর্যন্ত এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তদের মধ্যে দেহে  গুরুতর লক্ষণ দেখা যায়নি।

ওমিক্রন পরিবারের অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের মতো বিএ.২ এর বিরুদ্ধে আলফা বা করোনাভাইরাসের মূল ভ্যারিয়েন্টের টিকা কম কার্যকর। এই সাব-ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তদের দেহে টিকার সুরক্ষা ধীরে ধীরে কমতে থাকে।

 

জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের মতো ইউরোপীয় দেশগুলোসহ চীনে সাম্প্রতিক সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য বিএ.২ কে দায়ী করা হচ্ছে।  পাশাপাশি জার্মানি এবং যুক্তরাজ্যের মতো ইউরোপীয় দেশগুলিতে রেকর্ড সংক্রমণের জন্য দায়ী করা হয়েছে। 

বিএ.২ কে ‘স্টিলথ বৈকল্পিক’ বলা হচ্ছে। কারণ এটি শনাক্ত করা কিছুটা কঠিন। বিএ.১ এর একটি অনুপস্থিত জিনের কারণে সাধারণ পিসিআর পরীক্ষায় একে শনাক্ত করা যায়। কিন্তু বিএ.২ ও এর আরেক বোন বিএ.৩ শুধুমাত্র জিনোম সিকোয়েন্সের মাধ্যমে শনাক্ত করা যায়। বিএ.২ এর সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বিজ্ঞানীরা বলছেন, একই সময় অনেক দেশে একসঙ্গে সংক্রমণ ঘটাচ্ছে এই সাব-ভ্যারিয়েন্টটি। এছাড়া এই মুহূর্তে বিশ্বের অনেক দেশই করোনা বিধিনিষেধ তুলে নিয়েছে।