অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২২শে মে ২০২২ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯


ভোলায় পুলিশের বার্ষিক সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১ই মার্চ ২০২২ রাত ১০:০২

remove_red_eye

১৪৪




 
বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক : ‘‘দক্ষ পুলিশ সমৃদ্ধ দেশ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভোলা বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ,ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার  বিকালে ভোলার পুলিশ  লাইন্স মাঠে দিন ব্যাপী  এ সমাবেশ ও ক্রীড়ানুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।


ভোলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে বরিশাল রেঞ্জের ডি,আই,জি এস এম আক্তারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই আয়োজনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
পরে প্রধান অতিথি ক্রীড়া পতাকা উত্তোলন,পায়রা অবমুক্ত করণ এবং বেলুন উড়িয়ে বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন করেন। এর পরে বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০২২ এর  কেক কাটেন প্রধান অতিথি।
এ সময় তিনি বলেন, ক্রীড়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আমাদের মধ্যে ভ্রাতৃত্ববোধ ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বছরে এ একটি দিনের জন্য প্রতিটি পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবার অপেক্ষায় থাকে। পুরো অনুষ্ঠানটি ছিল  গোছাল ও সুশৃঙ্খল।
এসময় তিনি আরো বলেন,প্রত্যেক থানা হবে জনগনের আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা।সেই আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের জন্য পুলিশকে কাজ করতে হবে। আমরা মানুষের আস্থার পুলিশ হতে চাই, জনগণের পুলিশ হতে চাই, জন বান্ধব পুলিশ হতে চাই।
বর্তমানে পুলিশের সব উদ্যোগ আমাদের দেশের জনগণকে ঘিরে। তাই জনগনের মন জয় করে জনবান্ধন পুলিশ হতে আমরা বদ্ধপরিকর।
ডিআইজি আরো বলেন,বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে মাননীয় প্রধাননমন্ত্রী যেভাবে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন তাতে বোঝা যায় আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশের স্বপ্ন পূরণ করতে পারব।পাশাপাশি জনগণের পুলিশ হওয়ার জন্য আমাদের যে চেষ্টা রয়েছে তা এই মুজিববর্ষে তার প্রতিফলন ঘটাতে হবে সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে।এ জন্য সর্বস্তরের পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতার প্রয়োজন রয়েছে।
পুলিশে আগের অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে।এখন পুলিশ বদলে যাচ্ছে। আমরা সত্যিকার অর্থেই বদলে যেতে চাই। আমরা জনগণের পুলিশ হতে চাই।জনগণের পুলিশ হওয়ার জন্য আমাদের জনগণের দ্বারস্থ হতে হবে। জনগণের কাছে যেতে হবে। জনগণের কাছে আমাদের যে ইমেজ আছে তা তুলে ধরতে হবে।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই মনোরম প্যারেড প্রদর্শন করেন পুলিশ লাইন এর সদস্যবিন্দ ও জেলা পুলিশের খেলোয়াড়রা। পরে দুইজন মহিলা ক্রীড়াবিদের মশাল প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু হয়।পর্যায়ক্রমে পুলিশ সদস্যদের অংশ গ্রহনে ১০০ ও ৪০০ মিটার দৌড়,মহিলাদের বালিশ বদল,পুলিশ সদস্য শিশুদের চকলেট দৌড়,হাড়িভাঙ্গা খেলা,অতিথিদের সঙ্গে বেলুন খেলা,ভলিবল খেলা,ও রশি টানাটানিসহ ১৮ টি ইভেন্টে  বিভিন্ন প্রতিযোগিরা অংশগ্রহন করেন।
খেলা শেষ বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন করেন বরিশাল রেঞ্জের ডি,আই,জি এস এম আক্তারুজ্জামান।এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু,ভোলা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার দোস্ত মাহামুদ,জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকীব,ভোলা সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুছ, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
এসময় পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সদর সার্কেল) মো: ফরহাদ সরদার, সহকারি পুলিশ সুপার ( তজুমদ্দিন সার্কেল) মো: মাসুম বিল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর  মো: আব্বাস উদ্দিন সহ বরিশাল রেঞ্জ এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বৃন্দ।
এছাড়ার সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন-জেলা ও দায়রা জজ মো.মহসিনুল হক, জেলা প্রশাসক মো. তৌফিক ই লাহী চৌধুরী।সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় ভোলার পুলিশ সদস্য, বরিশাল রেঞ্জের ডি,আই,জি ও ভোলা বরেণ্য শিল্পীগণ নাচ, গান পরিবেশন করেন।অনুষ্ঠানে বিভিন্ন থানার ওসি, জনপ্রতিনিধি,ব্যবসায়িক ও সাংবাদিক,সুধী মহলের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পুড়ো অনুষ্ঠান সঞ্চলনা করেন তালহা তালুকদার বাঁধন।