অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ২৩শে অক্টোবর ২০২১ | ৮ই কার্তিক ১৪২৮


দৌলতখানে সুপারি বাগান থেকে বৃদ্ধের গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার


দৌলতখান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৯শে সেপ্টেম্বর ২০২১ রাত ১০:১০

remove_red_eye

৩৯



দৌলতখান প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে সুপারি বাগান থেকে আব্দুস সাত্তার নামে পঞ্চাশোর্ধ্ব এক ব্যক্তির গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার উপজেলার দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের নবীউল্লাহ হাওলাদার বাড়ির পাশের সুপারি বাগান থেকে ওই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়। আব্দুস সাত্তার ওই বাড়ির মৃত সোনা মিয়া হাওলাদারের ছেলে।
স্বজনরা জানান, নিহত আব্দুস সাত্তারের বাড়ির পাশে একটি বড় সুপারি বাগান রয়েছে। ওই বাগানের সুপারি চুরি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় তিনি গত এক মাস যাবৎ বাগানের টংঘরে রাত্রীযাপন করছিলেন। মঙ্গলবার রাতেও সুপারি পাহারা দিয়ে টং ঘরেই  রাত্রীযাপন করেন। বুধবার ফজরের নামাজ পড়তে আসা পাশের বাড়ির জসিম মসজিদের চাবি তার (আব্দুস সাত্তার) কাছ থেকে আনতে গেলে তার গলাকাটা রক্তাক্ত মরদেহ দেখে চিৎকার দিয়ে ওঠেন। এ সময় অন্য মুসল্লি ও স্থানীয়রা জসিমের চিৎকার শুনে ছুটে আসেন । পরে খবর পেয়ে দৌলতখান থানার ওসি বজলার রহমান সংগীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। মরদেহের পাশ থেকে একটি দা উদ্ধার করা হয়।
জানা যায়, নিহত আব্দুস সাত্তার শারীরিক প্রতিবন্ধিতার কারণে অবিবাহিত ছিলেন। তিনি বছরের বেশির ভাগ সময়ই তাবলীগ জামাতে থাকতেন। কারো সাথে তার কোন বিরোধ বা দ্ব›দ্ব ছিলনা বলে স্থানীয়রা জানান।
ঘটনা সম্পর্কে দৌলতখান থানার ওসি বজলার রহমান জানান, নিহতের লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল লিপিবদ্ধ করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকান্ডের কারণ এ মুহুর্তে জানা না গেলেও এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলে তিনি মন্তব্য করেন।
এ ঘটনায় ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মাদ কায়সার ও দৌলতখান উপজেলা চেয়ারম্যান মনজুর আলম খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।





আরও...