অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শুক্রবার, ১৮ই জুন ২০২১ | ৪ঠা আষাঢ় ১৪২৮


২৪ ঘণ্টায় ৩৬ মৃত্যু, ২৫ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ সংক্রমণ


বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩১শে মে ২০২১ রাত ০৮:৪৯

remove_red_eye

৪৪

বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক : গত ২৪ ঘণ্টায় নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড ১৯) আক্রান্ত ৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া একই সময়ে নতুন এক হাজার ৭১০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে, যা গত ২৫ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে গত ১৮ মে একদিনে ১ হাজার ৮২২ জনের মধ্যে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল। এরপর গত ২৫ দিনে একদিনে এত বেশি সংক্রমণ শনাক্ত হয়নি।

এ নিয়ে করোনাভাইরাসে দেশে মোট ১২ হাজার ৬১৯ জনের মৃত্যু হলো। মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ লাখ ৫৪০ জন।

সোমবার (৩০ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার সই করা কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নিয়মিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগের দিন রোববার (২৯ মে) ২৪ ঘণ্টায় নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড ১৯) আক্রান্ত ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ওইদিন করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন এক হাজার ৪৪৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তি বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে ৫০৩টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

এ সময়ে নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৮ হাজার ৮৬২টি। সংগৃহীত নমুনার মধ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ১৮ হাজার ১৭৮টি। গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষা নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা হলো ৫৯ লাখ ৪৭ হাজার ৫১৩টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষা করা নমুনার মধ্যে এক হাজার ৭১০টি নমুনায় করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টার করোনা সংক্রমণসহ এ নিয়ে দেশে ৮ লাখ ৫৪০ জন করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হলেন।

গত ২৪ ঘণ্টার হিসাবে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৯ দশমিক ৪১ শতাংশ। আর এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৬ শতাংশ।

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৫৬৭ জন। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুস্থ হলেন মোট ৭ লাখ ৪০ হাজার ৩৭২ জন। শনাক্ত বিবেচনায় মোট সুস্থতার হার ৯২ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

দেশে শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণ নিয়ে মারা গেছেন ৩৬ জন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ২৮ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৬ জন এবং দুই জনের মৃত্যু হয়েছে বাসায়। এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ নিয়ে দেশে মোট ১২ হাজার ৬১৯ জনের মৃত্যু হলো। মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৮ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত এই ৩৬ জনের মধ্যে ২৫ জন পুরুষ, ১১ জন নারী। এদের মধ্যে ১৮ জন ষাটোর্ধ্ব, ৯ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, পাঁচ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। চার জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

মৃত ৩৬ জনের মধ্যে ৯ জন ঢাকা বিভাগের, ১২ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, রাজশাহী বিভাগে ৮ জন, খুলনা বিভাগে ৬ জন, সিলেট বিভাগে একজন রয়েছেন।