অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২০শে জুন ২০২১ | ৬ই আষাঢ় ১৪২৮


দৌলতখানে মেম্বারের ভাই পিটালেন গ্রাম পুলিশের ছেলেকে


দৌলতখান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০শে মে ২০২১ রাত ১০:২৬

remove_red_eye

৯৭

দৌলতখান প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে এক ইউপি সদস্যের ভাই গ্রাম পুলিশের ছেলেকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে তাকে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ঘটনাটি অন্যদিকে প্রবাহিত করতে ওই ইউপি সদস্য  নাটক সাজিয়ে অভিযুক্তদের অসুস্থ দেখিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে দাবি করেন ভুক্তভোগীর পিতা গ্রাম পুলিশ মো. আবু কালাম।’
ঘটনাটি ঘটে বুধবার (১৯মে) রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের নুরমিয়ার হাট এলাকায়। আহত নুর সোলাইমানের পিতা আবু কালাম জানান, ‘তিনি সৈয়দপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশের দায়িত্বে আছেন। গত রাতে ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের ভাই পারভেজ তার চাচাতো ভাই মহশিনসহ কয়েকজন মিলে ওই ওয়ার্ডের ফরাজী বাড়ির পূর্বপাশে জুয়ার আসর বসিয়ে খেলধুলা করছিল। এসময় গ্রাম পুলিশের ছেলে নুর সোলাইমান তাদেরকে ধাওয়া করলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে পারভেজ, নুরউদ্দিন, রুবেলসহ কয়েকজন মিলে তার উপর লাঠিসোটা দিয়ে হামলা চালায় । পরে তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে হামলাকারিরা পালিয়ে যান। এঘটনায় তার মাথায় পাঁচটি সেলাই দেয়া হয়।’
এব্যাপারে ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামের ভাই অভিযুক্ত পারভেজ আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, ‘তারা রাতে একটি শালিস বৈঠকে ছিলো। এ বিষয় তারা কিছুই জানেন না। দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলার রহমান জানান, ‘এঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’