অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ১৭ই এপ্রিল ২০২১ | ৪ঠা বৈশাখ ১৪২৮


লালমোহনে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ব্যক্তি নিতে পারেনি চিকিৎসা সেবা


চরফ্যাসন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৩০শে মার্চ ২০২১ রাত ০১:১৪

remove_red_eye

১৪০

 
 
চরফ্যাসন প্রতিনিধি: লালমোহন পৌর সদরের হামীম একাডেমী সংলগ্ন সড়কে জাহাঙ্গীর আলম(৪২) নামে একজন কে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে একদল সন্ত্রাসী।আহত জাহাঙ্গীর আলমের  দুটি পা ভেঙ্গে  দেয়া হয়েছে এবং মাথায় ধারালো অস্ত্রের ২১ টি আঘাতের চিহৃ রয়েছে। হামলার পর লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করা  হলে ও  সন্ত্রাসীদের পক্ষ থেকে ফের হামলার হুমকির ফলে নিরাপত্তার স্বার্থে রাতেই তাকে পাশের উপজেলা  চরফ্যাসনের ১০০ শয্যার  হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
 
রবিবার রাত পৌনে ১০ টায় লালমোহন সদর বাজার থেকে বাড়ী ফেরার এ হামলার ঘটনা ঘটে।
 
চরফ্যাসন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাহাঙ্গীর আলম  জানান, তার বাড়ী লালমোহন উপজেলার  রমাগঞ্জ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে।  তার বাবা আলী আহাম্মদ রমাগঞ্জ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের  মেম্বার। স্থানীয় দু'জন ব্যবসায়ীর মধ্যে  লেনদেন নিয়ে  ঝামেলা নিষ্পত্তির  জন্য  শালিস বিচার করেন জাহাঙ্গীর।  এতে সংক্ষুব্ধ  একটি  পক্ষের ভাড়াটে সন্ত্রাসী জীবন ও ইউছুফের নেতৃত্বে  তার উপর  হামলা করে। ঘটনার সময় লালমোহন  সদর বাজার  থেকে রমাগঞ্জের  উদ্দেশ্যে  রওয়ানা করেন জাহাঙ্গীর।  পৌর সদরের  হামীম একাডেমীর সামনে  আসলে জীবন  ও ইউছুফ  তাকে ধরে হামীম  একাডেমী  সংলগ্ন সড়কে  নিয়ে  উপর্যপরি  কুপিয়ে  ও পিটিয়ে জখম করে।  তার ডাক চিৎকারে  স্থানীয়  লোকজন  তাকে উদ্ধার  করে  লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে  আবার ও হামলার হুমকি পাওয়ায় ঘটনার রাতেই পাশের উপজেলা  চরফ্যাসন হাসপাতালে  স্থানান্তর করা হয়।  এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত কোন  মামলা হয়নি।
 
লালমোহন থানার ওসি জানান, এ বিষয়ে কোন ধরনের  অভিযোগ  পাইনি। অভিযোগ  পেলে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।