অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ১৭ই এপ্রিল ২০২১ | ৪ঠা বৈশাখ ১৪২৮


বাংলার কণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর দৌলতখানে গুচ্ছগ্রামের ঘরের মালামাল লোপাটের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন


বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৫শে মার্চ ২০২১ রাত ১১:১৭

remove_red_eye

৮৮



বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক :  ‘দৌলতখানে গুচ্ছগ্রামের ঘরের মালামাল লোপাট’ শিরোনামে গত ২৩ মার্চ  একটি সংবাদ প্রকাশ করে দৈনিক বাংলার কন্ঠ। সংবাদে বলা হয়েছে, ভোলার দৌলতখানের মধ্যমেঘনার চর হাজিপুর ইউনিয়নে দুস্থ ভ‚মিহীণদের জন্য নির্মিত ১২০ টি ঘর উপকারভোগীদেরকে বন্দোবস্ত দেওয়ার আগেই ঘূর্নিঝড় আম্ফান ও নদী ভাঙনের শিকার হয়েছে। এসব ঘরের ঢেউটিন, লোহার এ্যাঙ্গেল,আরসিসি খুঁটি,টিউবওয়েলসহ বিভিন্ন মালামাল রাতের আঁধারে লোপাট হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্তরা হলেন, স্থানীয় খালেক পাটোয়ারীর ছেলে মাকসুদ মাঝি ও মনু মীরের ছেলে জাহাঙ্গীর। এসব তথ্য উঠে আসে সংবাদে। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার  দৌলতখানের সহকারি কমিশনার (ভূমি) মহুয়া আফরোজকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটি আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে। মহুয়া আফরোজ জানান, মজিববর্ষের অনুষ্ঠানের কারণে এখনোও সরেজমিনে যাওয়া হইনি। আগীম সোমবার সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্তি দায়িত্ব) সাইফুর রহমানের কাছে জমা দিবো। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান জানান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মহুয়া আফরোজকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি করেছি। প্রতিবেদন দেয়া হলে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনার পর থেকে গুচ্ছগ্রামের ঘরের মালামালগুলো পাহাড়ায় গ্রাম পুলিশ নিয়োজিত করা হয়েছে।