অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, বুধবার, ২৫শে নভেম্বর ২০২০ | ১১ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭


দৌলতখানে চাকরির প্রলোভনে প্রতারণার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


দৌলতখান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৪ই নভেম্বর ২০২০ রাত ০৯:৫৭

remove_red_eye

১৭

দৌলতখান  প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী চাকরিপ্রত্যাশী উম্মে কুলছুম শনিবার (১৪নভেম্বর) দৌলতখান রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সংবাদবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে উম্মে কুলসুম বলেন, গত নয় মাস আগে দক্ষিণ ভবানীপুর সংলগ্ন স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদরাসার প্রধান শিক্ষক মফিজুল ইসলাম  ওই মাদ্রসায় চাকরি দেওয়ার নামে নানা খরচ দেখিয়ে তার কাছ থেকে ৪৭ হাজার টাকা নেন। পরে মাদ্রাসার ঘর নির্মাণের জন্য তিনি আরও ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা দাবি করেন। এ ছাড়া ওই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও মাদ্রাসার প্রধান হিসেবে তাকে আরও ৫০ হাজার টাকা না দিলে চাকরি দেওয়া হবে না বলে তার ওপর চাপ সৃষ্টি করেন। সে এসব দাবি পূরণে অপরাগতা প্রকাশ করে সকল কাগজপত্র ও ৪৭ হাজার টাকা ফেরত চাইলে প্রধান শিক্ষক তা না দিয়ে ভয়ভীতি দেখান। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে চাকরিপ্রত্যাশী উম্মে কুলসুম দৌলতখান থানা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করেন। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান শিক্ষক মফিজুল ইসলাম বলেন, উম্মে কুলছুম এ প্রতিষ্ঠানে চাকরি করবে না বলে তার প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র নিয়ে গেছেন। তিনি যেসব অভিযোগ করেছেন তা স¤পূর্ণ মিথ্যা। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শাহাজান আলী শেখ জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলার রহমান জানান, উম্মে কুলছুল বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।