অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৫ই আশ্বিন ১৪২৭


দৌলতখানে বসতঘর ভাংচুর তিন নারীকে পিটিয়ে আহত


দৌলতখান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯ই সেপ্টেম্বর ২০২০ রাত ১০:২৫

remove_red_eye

৫৩


 

দৌলতখান প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় বসতঘর ভাংচুর ও তিন নারীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে উপজেলার চরখলিফা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাম্মদ আলী মাস্টার বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন,রানু বেগম (৬৫) কুলসুম (২০) ও নাজমা (৩৮)। তারা বর্তমানে দৌলতখান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী কামাল বাদী হয়ে দৌলতখান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) বাবুল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এবিষয়ে কামালের স্ত্রী আছমা বেগম জানান, দীর্ঘ দশবছর যাবৎ আমাদের ক্রয়কৃত যায়গায় বসতঘর উত্তোলন করে বসবাস করে আসছি। একমাস ধরে প্রতিপক্ষ মাইনুর ও তার ভাই দিন ইসলাম গংদের সাথে আমাদের দখলীয় জায়গা ও বসতঘর নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠকও হয়েছে। ঘটনার দিন বুধবার মাইনুর ও তার ভাই দিন ইসলামসহ ১০/১৫ জন মিলে আমাদের বসতঘর ভাংচুর এবং আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে করে আমাদের পরিবারের  রানু বেগম, কুলসুম ও নাজমা গুরুত্বর আহত হয়। তারা বর্তমানে দৌলতখান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে অভিযুক্ত মাইনুর জমি ও বসতঘর তার নিজের দাবী করে বলেন, আমরা কাউকে কোন মারধর করেনি। এটা আমাদের জমি ও ঘর। কামাল ও তার স্ত্রী আছমা আমাদের যায়গায় থাকছে। তবে বসতঘর ভাংচুরের বিষয় জানতে চাইলে তিনি নিশ্চুপ ছিলেন।

দৌলতখান থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বজলার রহমান জানান, এঘটনায় কামাল বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। আভিযোগের পর পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।