অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শুক্রবার, ২রা অক্টোবর ২০২০ | ১৬ই আশ্বিন ১৪২৭


প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে গড়ে উঠছে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা : এমপি শাওন


লালমোহন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৫ই আগস্ট ২০২০ রাত ১১:৩০

remove_red_eye

৫১



লালমোহন প্রতিনিধি : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না। আর এই বাংলাদেশ স্বাধীন না হলে, আজকে বাঙ্গালীরা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারতো না। বাংলা ভাষা ও মাতৃভাষার মর্যাদা তিনিই বিশ্বের কাছে তুলে ধরেছেন। দু:খের বিষয় যাদের জন্য নিজের পরিবারের মায়াকেও তুচ্ছ মনে করে দেশ স্বাধীন করলেন, সেই দেশেরই কিছু লোক মীরজাফরের প্রেতাত্মা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলো। কিন্তু বাঙ্গালীকে কোন অপশক্তিই দাবিয়ে রাখতে পারবে না, তা প্রমাণ করেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার নেতৃত্বে গড়ে উঠছে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে লালমোহন উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মোনাজাতে ভোলা-৩ আসনের এমপি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন এসব কথা বলেন।
এদিকে সকাল ৬টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করেন এমপি শাওন। পরে মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত শোকসভা ও দোয়া মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। এছাড়া সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্কে গরীব, অসহায়দের মাঝে খাবার বিতরণ করেন এমপি শাওন।
এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ,  পৌরসভা মেয়র এমদাদুল ইসলাম তুহিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম হাওলাদার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। অপর দিকে  তজুমদ্দিন প্রতিনিধি  জানান, জাতীয় শোক দিবস মহান স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে তজুমদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শনিবার পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতে শ্রদ্ধা নিবেদন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভায় প্রধান অথিথির বক্তব্যে ভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন বলেছেন, জাতীর পিতাই আমাদের শিখিয়েছেন  কিভাবে অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে হয়। বঙ্গবন্ধু মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য জেলখানায় যৌবন কাটিয়েছেন। যুদ্ধ পরবর্তী সাড়ে তিন বছরে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে পরিচিত করেছেন। আগস্ট এলেই বাংলাদেশে হত্যাকারীরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। ১৫ ও ২১ আগষ্ট তারই  প্রমান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন তজুমদ্দিন  উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন দুলাল, নির্বাহী অফিসার আল-নোমান, থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম জিয়াউল হক, উপজেলা প্রকৌশলী সাদ জগলুল ফারুক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফখরুল আলম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দেওয়ান, সাংগঠিক সম্পাদক অধ্যক্ষ হেলালউদ্দিন সুমন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রাসেদ খান, ভাইস চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন পোদ্দার,  জেলা পরিষদ সদস্য মিশু হাওলাদার,   উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল্লাহ কিরণ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, ছাত্রলীগ সভাপতি আমিন মহাজন,' সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাসেল প্রমুখ।