অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, সোমবার, ২১শে সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৬ই আশ্বিন ১৪২৭


দৌলতখানে জমি ও জীবন রক্ষার দাবিতে এক নারীর সংবাদ সম্মেলন


দৌলতখান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৫ই আগস্ট ২০২০ রাত ১০:৫৫

remove_red_eye

৭৯




দৌলতখান প্রতিনিধি : ভোলার দৌলতখানে জমি ও জীবন রক্ষার দাবিতে প্রতিপক্ষ ছালাউদ্দিন ও বাসেদ হাওলাদার গংদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মেহেরুন নেছা রাজিয়া নামের এক বিধবা নারীর। রাজিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের আকন্দ বাড়ির নফিজুল ইসলাম নিরবের স্ত্রী। শুক্রবার ভুক্তভোগী ওই নারী দৌলতখান রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

 সংবাদ সম্মেলনে মেহেরুন নেছা রাজিয়া লিখিত বক্তব্যে বলেন,  আমি আমার স্বামীর ওয়ারিশের সম্পত্তিতে দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে বসবাস করে আসছি। ইতোমধ্যে আমার চাচা শ্বশুর ফয়জুল ইসলাম ফয়েজ, কাঞ্চন মিয়া, সাফাত মিয়া ও সেলিম মিয়া মাতৃত্ব ওয়ারিশের মালিক হয়ে মূল মালিকের বোনের অংশ থেকে ৬৮ শতাংশ জমি ছালাউদ্দিন গং ও আঃ বাছেত হাওলাদার গংকে মেপে পিলার করে বুঝিয়ে দেয়। উক্ত জমিতে তারা ঘর নির্মান করে বসবাস করে আসছে। বর্তমানে ছালাউদ্দিন গং ও আঃ বাছেত হাওলাদার গং লোভে বষিভূত হয়ে জমি থেকে মূল মালিককে উচ্ছেদের পায়তারা করছে। গত ২৫ জুলাই আমাকেও খুন করার পরিকল্পনা করে। এছাড়াও ছালাউদ্দিন গং আমার সম্পত্তির উপর  তিনতলা ভবন নির্মানের জন্য ফাউন্ডেশন তৈরী করেছে। সম্পত্তির মূল মলিকরা বাধা দিলে ছালাউদ্দিন গং দা-বগি, দামা ও লোহার রড নিয়ে আমাদেরকে মরধর করে। এমনকি আমাকে হত্যা করার চেষ্টা করে। এমতাবস্থায় আমি বসতভিটা রক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও ভোলা-২  আসনের এমপি আলী আজম মুকুল এর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।