অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শুক্রবার, ২রা অক্টোবর ২০২০ | ১৬ই আশ্বিন ১৪২৭


সাংবাদিক মামুন সপরিবারে করোনা মুক্ত, কৃতজ্ঞতা প্রকাশ


চরফ্যাসন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৩১শে জুলাই ২০২০ রাত ০২:০৩

remove_red_eye

১০৯

চরফ্যাশন প্রতিনিধি: দৈনিক সময়ের চিত্র'র সম্পাদক ও প্রকাশক, দৈনিক জনকন্ঠের নিজস্ব সংবাদদাতা এ আর এম মামুন, তার স্ত্রী মারজিয়া বেগম শান্তা, দুই ছেলে মাসরুর রহমান মাসফু, আবরার রহমান মাহির  সকলের দোয়ায় ও আল্লাহর রহমতে করোনা ভাইরাস মুক্ত হয়েছেন। ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে চরফ্যাশন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার (রোগনিয়ন্ত্রন) ডা: আবদুল হাই ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শোভন কুমার বসাক কোন উপসর্গ না থাকায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাইড লাইন অনুযায়ী করোনা মুক্ত ঘোষণা করেন এবং হোম আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র প্রদান পূর্বক কর্মক্ষেত্রে যোগদানের অনুমতি প্রদান করেন। সাংবাদিক মামুন পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আক্রান্ত কোন ব্যক্তির সংস্পর্শে এসে  গত ১১ জুলাই থেকে জ্বর, ঠান্ডা-কাশিতে ভোগেন দুই দিন পর তার স্ত্রী মারজিয়া বেগম শান্তা, দুই ছেলে মাসরুর রহমান মাসফু, আবরার রহমান মাহির জ্বর, ঠান্ডা-কাশিতে ভোগেন। তাঁরা ১৬ জুলাই বৃহস্পতিবার চরফ্যাশন হাসপাতালের করোনাভাইরাস পরীক্ষার বুথে নমুনা দেয়ার পর  ১৯ জুলাই রবিবার রাতে তাদের ৪ জনেরই কোভিড-১৯ 'পজিটিভ' ফল আসে। তাঁরা বাসায় থেকে চরফ্যাশন হাসপাতালের ডাক্তার ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডাক্তারদের পরামর্শে চিকিৎসা নিয়েছেন। ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেলে চরফ্যাশন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার (রোগনিয়ন্ত্রন) ডা: আবদুল হাই ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শোভন কুমার বসাক কোন উপসর্গ না থাকায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাইড লাইন অনুযায়ী করোনা মুক্ত ঘোষণা করেন। এদিকে সাংবাদিক মামুন সপরিবারে করোনা মুক্ত  হওয়ায় তিনি আল্লাহ কাছে লাখ শুকরিয়া আদায় করেছেন এবং তিনি সপরিবারে আক্রান্ত হলে দেশ ও দেশের বাইরের যেসব ব্যক্তি রোগমুক্তির জন্য দোয়া করেছেন ও দোয়া চেয়েছেন এবং চিকিৎসার খোঁজখবর নিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।  বিশেষ করে সাবেক পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি , চরফ্যাশন উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন আখন,  উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন, প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবুল হাসেম মহাজন, সম্পাদক অধ্যক্ষ মনির আহমদ শুভ্র, সাংবাদিক কল্যাণ তহবিল, অনলাইন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, সাংবাদিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ, সহকর্মী সাংবাদিক , সুধীজনসহ সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ যারা  পাশে থেকে সহানুভূতি ও সহমর্মিতা জানিয়েছেন তাদের প্রতি সাংবাদিক মামুন কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান। যারা নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও নিজ নিজ অবস্থান থেকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করেছেন তাদের প্রতিও গভীর কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি জানান, এ সময়ে শুভানুধ্যায়ীদের সহানুভূতি ও সহমর্মিতা তার পরিবারের সদস্যদের মনে সাহস যুগিয়েছে এবং  চলার পথ সুগম করেছেন। তিনি সুস্বাস্থ্য কামনা করে সকলের দোয়া কামনা করেন।