অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, বৃহঃস্পতিবার, ১লা অক্টোবর ২০২০ | ১৫ই আশ্বিন ১৪২৭


তজুমদ্দিনে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী অপহরণ,আটক-১


তজুমদ্দিন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৭শে জুলাই ২০২০ রাত ১১:০৭

remove_red_eye

১৩৩



তজুমদ্দিন প্রতিনিধি : ভোলার তজুমদ্দিনে সপ্তম শ্রেণিতে পড়–য়া এক স্কুল ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে জোড়পূর্বক তুলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে ৫জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ২/৩ জনকে অভিযুক্ত করে তজুমদ্দিন থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করে।

ছাত্রীর মা সেলিনা আক্তার জানান, শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে তার শম্ভুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিতে পড়–য়া মেয়ে (১২) গোসল করতে পুকুর ঘাটলায় যায়। এরপর দীর্ঘ সময় সে বাসায় ফিরে না আসায় তারা খোজাখুজি করতে থাকেন। পরে তাদের প্রতিবেশী সজিবকে জিজ্ঞেস করলে সজিব জানান, লালমোহন উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের জিএম বাজার সংলগ্ন আঃ মালেকের ছেলে মোঃ বেলাল হাসান তাকে জোড়পূর্বক তুলে নিয়ে যায়। এঘটনায় ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে তজুমদ্দিন থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।  অভিযোগ পেয়ে এসআই শামীম শম্ভুপুর ইউনিয়নের কেরামত আলী পাটওয়ারী বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত বেলাল হাসানের বড় ভাই এমরানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জিয়াউল হক বলেন, অপহৃতার পিতার অভিযোগের আলোকে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। অপহৃতাকে উদ্ধারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ, ছাত্রী অপহরকারী বেলাল হাসান ইতিমধ্যে শম্ভুপুর ইউনিয়নে আরেকটি বিবাহ করেন।