অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ৩০শে মে ২০২০ | ১৬ই জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭


চরফ্যাশনে জমি জমাকে কেন্দ্র করে হামলা, মামলা দিয়ে হয়রানি


চরফ্যাসন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২২শে মে ২০২০ রাত ১১:৩৩

remove_red_eye

৬০

চরফ্যাশন প্রতিনিধি:: ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার আহমদপুর ইউনিয়নে জমিজমাকে কেন্দ্র করে হামলা ও মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।

গত (২০মে) বুধবার আহমদপুরের ফরিদাবাদ ৫নং ওয়ার্ডে ঘূর্ণিঝড়ে মাছের ঘের প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কায় ফরিদাবাদ মৌজার ১০৩৮৫ দাগের মো. ইব্রাহিম মাঝি গং এর এক একর মালিকানা জমিতে মাছের ঘেরের পাড় উচু করার জন্য মাটি কাটতে গেলে একই বাড়ির আমির হোসেন মাঝিসহ আলি মিয়া ও আলাউদ্দিন এসে বাধা দিয়ে বাক বিতন্ডায় জড়ায়। পরে ইব্রাহিম মাঝি বিষয়টি শান্ত করে বাড়িতে যায়।

এসময় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ওঁতপেতে থাকে আলাউদ্দিন,আকবর,শাহাবুদ্দিন,সাহিন সরদার, ও আব্দুর রব। পরে ইব্রাহিম মাঝি ব্যাংকে টাকা জমা দেয়ার জন্য ২লাখ ৫হাজার টাকা নিয়ে ঘর থেকে বের হলে আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে ওঁতপেতে থাকা ব্যাক্তিরাসহ তৈয়ব আলি,হামিদ আলি,আমির হোসেন,আবু বকর এসে দা,ছেনি লাঠিসোটা ও লোহার রড দিয়ে এলোপাথারি মারধর ও রক্তাক্ত ফুলা জখম করে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ করেন ওই ভুক্তভোগী।

ইব্রাহীম মাঝি নিজেকে আত্মরক্ষার্থে দৌড়ে বড় ভাই ইদ্রিস সরদারের ঘরে যায়। দ্বিতিয় দফায় সেখানেও গিয়ে অভিযুক্তরা মারধর করে এসময় বড় ভাই ইদ্রিস সরদার ও ভাবি আমেনা বিবি ইব্রাহিম মাঝিকে উদ্ধার করার চেষ্টা করলে আমেনা বিবি ও ইদ্রিস সরদারকে গাবের লাঠি এবং কাঠের বাগা দিয়ে বেধরক মারধর করে বলে জানান আহত আমেনা বিবি ও তার স্বামী ইদ্রিস সরদার।

আমেনা বিবি অভিযোগ করে আরও বলেন, অভিযুক্ত ব্যাক্তিরা আমার স্বামীকেসহ আমাকে মারধর করে ঘরের আসবাপত্র ভেঙ্গে ও ঘরের বেড়া কুপিয়ে তছনছ করে ঘর সংস্কারের জন্য রাখা ৫০হাজার টাকাসহ স্বর্ণলঙ্কার নিয়ে যায়। এসময় আমাদের স্বজনরাসহ স্থানিয়রা এসে আমাদের উদ্ধার করে চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করায়।

এ বিষয়ে ইব্রাহিম মাঝি বলেন, আমাদের ওই এক একর জমির কাগজপত্র থাকলেও প্রতিপক্ষের কোন কাগজপত্র নেই তারা স্থানিয় চলমান শালিস ফয়সালাকে উপেক্ষ করে দির্ঘদিন ধরে ওই জমি জোরজুলুম করে জবর দখলের পায়তারা করছে এবং আমাদের পরিবারের সকলকে হামলা মামলা করে বিভিন্ন রকমের অত্যাচার নির্যাতনের মধ্যমে হয়রানি করছে।

সরদার বাড়িতে (২২মে) শুক্রবার সরেজমিনে গেলে এ অভিযোগ অস্বিকার করে মো. আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, তারা আমাদের চাচা ও চাচাতো ভাই তারা আমাদের সিমানার ভিতরে এসে মাটি কাটে আমরা বাঁধা দিলে তারা আমার বাবা আলি মিয়াকে মারধর করে বলে শুনি। বাবাকে মারধরের কথা শুনে আমরা উত্তেজিত হয়ে ইব্রাহিম মাঝির ঘরের সামনে ছুটে যাই এবং সেখানে তারা আমাদের উপর ইটপাটকেল ছোড়ে। এক পর্যায়ে তাদের সাথে আমাদের সামান্য হাতাতি হলেও তারাই আমাদের উপর হামলা করে আমাদের লোকজনকে আহত করে।

তবে আলাউদ্দিন গংদের আহত লোকজনকে হাসপাতালে পাওয়া না গেলেও বাড়িতে তাদের ঘোরাঘুরিসহ ইব্রাহিম গংদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়াতে দেখা যায়। এ বিষয়ে দুলারহাট থানা অফিসার ইনচার্জ বলেন, আহমদপুরের ফরিদাবাদ এলাকার ওসমান সরদার বাড়িতে জমিজমাকে কেন্দ্র করে মারামারির ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে পুলিশ একজনকে আটক করে আদালতে প্রেরন করেছেন।




আজকের সাহরীর ও ইফতারে সময় সূচী ভোলা জেলার জন্য



আরও...