অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ৬ই জুন ২০২০ | ২৩শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭


চরফ্যাশনে পত্রিকা হকারদের খোবর নেয়নি কেউ


চরফ্যাসন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৩শে এপ্রিল ২০২০ রাত ০৮:০৩

remove_red_eye

৩৩

চরফ্যাশন প্রতিনিধি:: ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার পত্রিকা হকাররা মানবেতর জীবনযাপন করছে, খবর নেয়নি কেউ। করোনা ভাইরাসের কারনে ব্যবসা বানিজ্যসহ সরকারি বেসরকারি প্রকিষ্ঠান বন্ধ থাকায় উপজেলার ১৫ জন পত্রিকা হকার দেড় মাস যাবত পত্রিকা বিতরণ বন্ধ করে দিয়েছে। পত্রিকা বিক্রি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আর্থিক সমস্যা ও কর্মহীন হয়ে পড়া এসব হকারদের জীবিকা নির্বাহ বন্ধ হয়ে গেছে। সরকারি বা বেসরকারি কোনোও প্রকার খাদ্য সহায়তা পাননি এসব হকাররা। পত্রিকা বিক্রি করে যাদের সংসার চলে সেই হকাররা আজ পরিবার পরিজন নিয়ে কষ্টে দিন পার করছেন বলে জানান চরফ্যাশন সদরের প্রতিবন্ধি হকার রাজিব। তিনি বলেন, আমার ৩ ভাই ও ৪ বোনের সংসার। অসুস্থ বাবার চায়ের ব্যবসাটিও বন্ধ হয়ে আছে। প্রতিদিন পত্রিকা বিক্রি করে নগদ টাকা উপার্জন করি। এটাকা দিয়েই আমাদের সংসার চলে। লকডাউন শুরু হলে উপজেলা থেকে আমাাকে সামান্য কিছু ত্রাণ দেওয়া হয় আজ প্রায় দেড় মাস যাবত কেউ কোনো খোঁজ খবর নেয়নি আমাদের। গত বছর সড়ক দূর্ঘটনায় আমার একটি পা ভেঙ্গে যায় মানুষের সাহায্য সহযোগীতায় চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছি। সুস্থ হওয়ার পরে কিছুদিন পত্রিকা বিক্রি করলেও আজ প্রায় দেড় মাস ধরে করোনা ভাইরাসের জন্য বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছি। ফলে আমাদের হকারদের আয়ের একমাত্র পথটিও বন্ধ হয়ে গেছে। চরফ্যাশন বাজারের পত্রিকা এজেন্ট ও বিতরণকারী মো. কবির হোসেন বলেন, করোনা ভাইরাসের জন্য আমার পত্রিকা বিতরণ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ছেলে মেয়ে নিয়ে আর্থিক সমস্যায় অসহায় হয়ে দিন পাড় করছি। আমাদেরকে সরকারি বা বেসরকারি পর্যায়ে কেউই কোনো প্রকার সহায়তা দেয়নি। আমার আবেদন রইলো উপজেলা প্রশাসন যেন আমাদের হকারদের সরকারি অনুদান প্রদাণ করেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, পত্রিকা হকারসহ নিম্ম আয়ের মানুষদের তালিকা করে সরকারি ত্রাণ পৌছে দেওয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।




আজকের সাহরীর ও ইফতারে সময় সূচী ভোলা জেলার জন্য