অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, শনিবার, ৬ই জুন ২০২০ | ২৩শে জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭


লালমোহনে সাবেক কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ


লালমোহন প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০শে এপ্রিল ২০২০ রাত ০৯:১৪

remove_red_eye

৮৪

লালমোহন প্রতিনিধি:: ভোলার লালমোহনে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাবেক কাউন্সিলরের নেতৃত্বে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার বিকেলে পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ড মহিলা কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম জাহাঙ্গীর (৪৫)।
 
নিহতের পরিবারের দাবী, পাশ্ববর্তী সাবেক কমিশনার মনিরুজ্জামান মনিরের নেতৃত্বে কয়েকজন যুবক লাঠি সোঠা নিয়ে জাহাঙ্গীরের উপর হামলা চালালে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। অপরদিকে এ ঘটনাকে মিথ্যা দাবি করে নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই  বললেন অভিযুক্তের বড় ভাই একই উপজেলার চরভূতা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান টিটব।

নিহত জাহাঙ্গীরের ভাইয়ের স্ত্রী জাহানারা ও ছেলে আলামিন শান্ত জানান, তাদের ঘরের চালের উপর দিয়ে মনির কমিশনারের শ্বশুর সামছুদ্দিন মানিক ইঞ্জিনিয়ারের বিদ্যুৎ লাইননের তার টানা হয়। এতে জাহাঙ্গীরের ঘরে সমস্যা হওয়ায় সকালে জাহাঙ্গীরের স্ত্রী ওই লাইনের তার সরিয়ে নিতে বলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয় সামছুদ্দিন মানিক ইঞ্জিনিয়ারের ঘরের লোকজন। এক পর্যায়ে বিকেলে সামছুদ্দিন মানিক ইঞ্জিনিয়ারের জামাতা মনির কমিশনারের নেতৃত্বে পাকার মাথার গুজা সুমনসহ ১০-১৫ জন অতর্কিত জাহাঙ্গীরের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় তারা জাহাঙ্গীরকে উপর্যপরি মারধোর করলে ঘটনাস্থলেই জাহাঙ্গীরের মৃত্যু হয়।

লালমোহন থানার ওসি (তদন্ত) বশির আলম জানান, নিহত জাহাঙ্গীরের শরীরের কোন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। ভেতরে কোন আঘাত হয়ে থাকলে পোস্টমর্টেমের পর জানা যাবে মৃত্যুর কারণ। আপাতত পোস্টমর্টেমের জন্য ভোলা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করলে মামলা নেওয়া হবে।

মনির কমিশনারের বক্তব্য নিতে তার মুঠো ফোনে একাধিক বার কল দিলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। তবে তার বড় ভাই চরভূতা ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান টিটব জানান, জাহাঙ্গীরের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তাকে মারলে অবশ্যই শরীরে আঘাতের চিহ্ন থাকতো। তার হার্টের সমস্যা ছিল বলেও জানান চেয়ারম্যান টিটব।




আজকের সাহরীর ও ইফতারে সময় সূচী ভোলা জেলার জন্য