ভোলা, বুধবার, ১লা এপ্রিল ২০২০ | ১৭ই চৈত্র ১৪২৬

বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক


১৬ই মার্চ ২০২০ রাত ১০:৫৪




ভোলায় ৩ দিনে ৪ প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টাইনে

ভোলা সদর

বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক:: ভোলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কোন ব্যাক্তি না থাকলেও ঝুঁকিতে থাকা প্রবাসী আরো ২ যুবককে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে গত ৩ দিনে ভোলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে ৪ জনকে রাখা হয়েছে। সোমবার রাত সাড়ে ৮ টায়  ভোলার স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এদিকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভোলা জেলায় ৯টি কন্ট্রোল রুম খেলা হয়েছে।


ভোলার সিভিল সার্জন রতন কুমার ঢালী জানান, বিদেশ থেকে আসা প্রবাসীদের ১৪ দিন থাকতে হবে। এ পর্যন্ত ৪ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকলেও আরো বৃদ্ধি পাওয়ার আশংকা রয়েছে।


স্বাস্থ্য বিভাগ হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকাদের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। বর্তমানে তারা সুস্থ আছে। কোয়ারেন্টাইনে ২ জন ভোলা সদর ও ১ জন দৌলতখান উপজেলার। এছাড়া আরো ১ জনের ব্যাপারে জানা যায়নি। এদিকে সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, করোনা মোকাবেলায় সদর হাসপাতালে ২০ শয্যার আলাদা আইসোলেশন ইউনিট খেলা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য উপজেলা গুলোতেও একই ভাবে আইসোলেশন ইউনিট খোলা হয়েছে। জেলার ৭ উপজেলায় ৭টি ও সিভিল সার্জন ও সদর হাসপাতালসহ ৯টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। যেখান থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সকল তথ্য আদান-প্রদান করা হবে। এছাড়াও  ইউনিয়নে একটি কওে কমিটি করা হয়েছে। তারা এলাকায় প্রবাসীদের খোঁজ খবর নিবেন। এসময় তিনি আরো জানান, যে সকল রোগী জ্বর, সর্দি, গলা ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালের দ্বারস্থ হবেন, তাদেরকে আলাদা স্ক্যানিং করার জন্য হাসপাতালে করোনা স্ক্যানিং সেন্টার খেলা হয়েছে। সেখানে সার্বক্ষণিক একজন ডাক্তার নিয়োজিত রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।