ভোলা, সোমবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১২ই ফাল্গুন ১৪২৬

বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক


২৯শে জানুয়ারী ২০২০ রাত ০৯:১৬




ভোলা-লক্ষ্ণীপুর নৌ রুটে ঘনকুয়াশা ও ডুবোচরের কারণে ফেরি চলাচল ব্যহত

প্রতিবেদন





বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক : ঘনকুয়াশা ও ডুব চরের কারনে প্রায় প্রতিদিনই ভোলা-লক্ষ্ণীপুর রুটের ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। নির্দিষ্ট সময়ের চাইতে ২/৩ ঘন্টা বেশী সময় লাগে ফেরি পারপার হতে। এতে করে দুর্ভোগে পড়ে ফেরির যানবাহনসহ দূরপাল্লার যাত্রীরা। এছাড়াও দুই প্রান্তে সৃষ্টি হচ্ছে র্দীঘ যানজট।
জানাযায়, ভোলা থেকে লক্ষèীপুরের উদ্দ্যোশে যাওয়ার সময় কলমীলতা ফেরি টি বুধবার সকালে ঘনকুয়াশার কবলে পড়ে । সকাল ৮ টা বেলা ১১ টা পর্যন্ত  ১৭টি বাস ট্রাক নিয়ে ডুবো চরে আটকা থাকে । রহমতকালি চ্যানেলে চর জেগে ওঠায় ওই চ্যানেল দিয়ে ফেরি চলাচল প্রায় বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।
 ফেরির দায়িত্বে থাকা বিআইডবিøউটিসি’র ব্যবস্থাপক কেএম এমরান হোসেন জানান, ১০ দিন আগেও একবার ফেরি কলমীলতা ওই ডুবো চরে দুই দিন আটকা ছিল। মজুচৌধুরী ঘাট এলাকায় ড্রেজিং হওয়ার পর রহমতখালি এলাকায় ড্রেজিং করার জন্য বুধবার ড্রেজার স্থাপন করা হয়েছে। ডুবোচর ড্রেজিংএর পরেই ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে জানান ড্রেজিংএর দায়িত্বে থাকা মাস্টার। এদিকে বুধবার সকাল থেকে ফেরি আটকে থাকার ফলে ওই ফেরিতে থাকা ট্রাক স্টাফ ও বাস যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। কলমীলতা ফেরির মাষ্টার কাওসার আহমেদ জানান, ডুবো চরের কারনে প্রায় প্রতিদিনই ভোলা-লক্ষèীপুর রুটে ফেরি চলাচলে বিঘœ ঘটে। বিশেষ করে ভাটার সময় ডুবোচরে ২/৩ ঘন্টা আটকে থাকে। পরে জোয়ার এলে গন্তব্যে যাত্রা শুরু করে।