অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, রবিবার, ১৯শে মে ২০২৪ | ৫ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১


বেদনা ও উত্তেজনা নিয়ে রমজানের সবচেয়ে পবিত্র রাত পার করেছে ফিলিস্তিনী মুসলমানরা


বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬ই এপ্রিল ২০২৪ বিকাল ০৪:৩৭

remove_red_eye

৮৮

ইসলামের তৃতীয় পবিত্রতম স্থান আল আকসায় ফিলিস্তিনী মুসলমানরা বেদনা ও উত্তেজনা নিয়ে শুক্রবার রমজানের সবচেয়ে পবিত্র রাতটি পার করেছে।
রমজানের শেষ শুক্রবারটি ছিল একইসঙ্গে পবিত্র শবে কদরেরও রাত। যে রাতে ফেরেশতা জিব্রাইল মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সা:) এর সাথে প্রথম সাক্ষাত করেন। এ রাতেই মুসলিমদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন নাজিল হয়।
এদিকে, জেরুজালেমের আল আকসায় প্রবেশ নিয়ে মসুল্লি ও ইসরায়েলী পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।
কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রায় এক লাখ ২০ হাজার লোক আল আকসায় প্রবেশ করে। এ সময়ে গ্রান্ড মুফতি মোহাম্মদ আহমাদ হুসেইন সাহসের সাথে সব মোকাবেলা করতে মুসুল্লিদের প্রতি আহ্বান জানান।
চলমান গাজা যুদ্ধের কারণে আল আকসায় প্রচুর ইসরায়েলী পুলিশ মোতায়েন ছিল।
জেরুজালেমের আদিল আল আঘা (৫৩) জানিয়েছেন, আল্লার মহিমা নিয়ে শ্লোগান দিতে থাকা লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করতে ইসরায়েলী পুলিশ ছোট্ট ড্রোন মোতায়েন করে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করলে অনেকেই ফজরের সালাত আদায় না করেই আল আকসা থেকে পালিয়ে যায়।
পুলিশ বলেছে, তারা সন্ত্রাস উস্কে দেয়ার অভিযোগে আট ব্যক্তিকে আটক করেছে।
ইসরায়েল অধিকৃত পশ্চিম তীরের তুলকারেম থেকে আসা ইয়াসের বাসার জানিয়েছেন, বৃদ্ধ ও তরুণদের পুলিশ আল আকসায় ঢুকতে দেয়নি। কেবল ৫৫ বছরের বেশি বয়সী পুরুুষ এবং ৫০ এর বেশি বয়সী নারীদেরকেই আল আকসায় প্রবেশ করতে দেয়া হয়।
অন্য সময়ে শবে কদরের রাত ঘিরে আল আকসায় এক ধরনের উৎসবের আমেজ তৈরি হয়। কিন্তু চলতি বছরে গাজায় যুদ্ধ অব্যাহত থাকায় উৎসবের আমেজের বদলে আল আকসায় ছিল বেদনা ও বিষণœতা।
এ কারণে ইয়াসির বাসার বলেছেন, যুদ্ধ না থাকলে সবকিছু আরো সহজ হতো।
বেথলেহেম থেকে আসা সামিহা আল খাদি (৫৫) বলেছেন, জেরুজালেম বিষণœ এবং সে তার উজ্জ্বলতা হারিয়েছে। গাজায় যা চলছে তা নিয়েই আমরা সারাক্ষণ ভাবি। এক মুহুর্তের জন্যেও আমরা তা এড়াতে পারি না।
আদনান জাফর(৬০) পুরনো এ শহরে মিষ্টি তৈরি করেন। সাধারণত রমজানে তার দোকানে ভিড় লেগেই থাকত।
তিনি বলেন, এ বছরের মতো এরকম রমজান আমি আর দেখিনি। আমরা সকলেই জানি কেন? গাজা কেবল আমাদেরকেই নয়, পুরো বিশ্বকেই প্রভাবিত করেছে।

 

সুত্র বাসস





কাল ভোলার ৩ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন

কাল ভোলার ৩ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন

শেষ দিনের প্রচারনায় সরগরম ছিলো ভোলার নির্বাচনী মাঠ

শেষ দিনের প্রচারনায় সরগরম ছিলো ভোলার নির্বাচনী মাঠ

বরগুনায় জলবায়ু পরিবর্তন  বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

বরগুনায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

চরফ্যাশনে লঞ্চ মালিকদের সিন্ডিকেটে জিম্মি যাত্রীরা

চরফ্যাশনে লঞ্চ মালিকদের সিন্ডিকেটে জিম্মি যাত্রীরা

ভোলায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সেবা প্রত্যাশীদের জন্য পার্ক উদ্বোধন

ভোলায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সেবা প্রত্যাশীদের জন্য পার্ক উদ্বোধন

ভোলায় উপজেলা নির্বাচনকে সামনেরেখে উপকূল জুড়ে কোস্টগার্ড মোতায়েন

ভোলায় উপজেলা নির্বাচনকে সামনেরেখে উপকূল জুড়ে কোস্টগার্ড মোতায়েন

ভোলার ভেলুমিয়ায় দিনব্যাপি বিনামূল্যে চক্ষু ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

ভোলার ভেলুমিয়ায় দিনব্যাপি বিনামূল্যে চক্ষু ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

সামান্য অর্থ বাঁচাতে গিয়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে উপেক্ষা করে দেশ ধ্বংস করবেন না : প্রধানমন্ত্রী

সামান্য অর্থ বাঁচাতে গিয়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে উপেক্ষা করে দেশ ধ্বংস করবেন না : প্রধানমন্ত্রী

১২ অঞ্চলে ৬০ কিমি বেগে ঝড়ের আভাস

১২ অঞ্চলে ৬০ কিমি বেগে ঝড়ের আভাস

শেখ হাসিনা মেট্রোরেল টিকেটে ভ্যাট আরোপের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন : সেতুমন্ত্রী

শেখ হাসিনা মেট্রোরেল টিকেটে ভ্যাট আরোপের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন : সেতুমন্ত্রী

আরও...