অনলাইন সংস্করণ | ভোলা, সোমবার, ২৮শে নভেম্বর ২০২২ | ১৪ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯


সরকারকে মানুষ আর ক্ষমতায় দেখতে চায় না: আলাল


বাংলার কণ্ঠ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩ই অক্টোবর ২০২২ বিকাল ০৫:৫২

remove_red_eye

৩৭

আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব ফেরেশতাকে দিলেও নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

তিনি বলেছেন, এই সরকারকে দেশের মানুষ আর এক মুহূর্ত ক্ষমতায় দেখতে চায় না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ‘অবিলম্বে বিনাভোটের সরকারের পদত্যাগ ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে’ এই সমাবেশ হয়।

এম জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে ও মোফাজ্জল হোসেনের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, বিলকিস ইসলাম, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ নেছারুল হক, তাঁতী দলের কাজী মনিরুজ্জামান মনির, ছাত্রদলের সাবেক নেতা জহিরউদ্দিন তুহিন প্রমুখ।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের ত্রুটি এরই মধ্যে প্রমাণিত। আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচন কমিশনে ফেরেশতা বসিয়ে দিলেও নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। সীমাহীন অনিয়মের কারণে গাইবান্ধা ৫ আসনের উপনির্বাচন বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে। রিটার্নিং অফিসার জেলার প্রশাসক নির্বাচন বন্ধ করার কথা। কিন্তু প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচন বন্ধ করেছেন। তাদের কথা ডিসি-এসপিরা মানেন না। যত ভালো মানুষ হোক না কেন, আওয়ামী লীগের অধীনে কেউ ভালোভাবে কাজ করতে পারবে না। নির্বাচন কমিশনের উচিত আদালতে গিয়ে নির্দেশনা চাওয়া বা পদত্যাগ করা। এছাড়া কোনো পথ নেই।

আলাল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারকে দেশের মানুষ আর এক মুহূর্ত ক্ষমতায় দেখতে চায় না। জনগণ আমাদের সঙ্গে শামিল হচ্ছে। ইনশাআল্লাহ জনগণের সম্মিলিত আন্দোলনের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করা হবে।

সুত্র জাগো