বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক : ভোলা সদর উপজেলার পূর্ব উত্তর দিঘলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানকে হত্যার ২১ দিন পরও সকল আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় এবং দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। আজ সোমবার দুপুরে ভোলা সদর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির আয়োজনে সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে এ সময় বক্তব্য রাখেন, ভোলা সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা সমিতির সভাপতি মোঃ আব্দুল হাই, নিহত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে মোঃ হাসিবসহ প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, শিক্ষকরা শিক্ষিত জাতি গড়ার কারিকর অথচ সহকারী শিক্ষক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানকে পারিবারিক দন্দ্ব ও জমি-জমার বিরোধের জের ধরে নির্মমভাবে প্রাকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। অথচ এ ঘটনায় এখনো পুলিশ সকল আসামীকে গ্রেফতার করছে না। তাই এ ঘটনার নিন্দা জানাই এবং সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রাসাশনের কাছে এ হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত ১১ জনকে দ্রুত গ্রেফতার করে ফাঁসি দেওয়ার দাবী জানান। এসময় ভোলা সদর উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক প্রাধান শিক্ষক-শিক্ষিকা ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, গত ২২ এপ্রিল ভোলার উত্তর দিঘলদী এলাকায় স্থানীয় সামছুদ্দিন সিকদারের সাথে পারিবারিক ও জমি-জমার বিরোধকে কেন্দ্র করে শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান ও তার ছেলেকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে আহত করা হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধিন অবস্থায় গত ২৩ এপ্রিল মারা যান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান। এ ঘটনার ১১ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হরেও পুলিশ মাত্র একজনকে গ্রেফতার করলেও এখনো ১০ জনকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ ব্যাপারে ভোলা থানার ওসি ছগির মিঞা জানান, তারা এই মামলার ২নং আসামীকে গ্রেফতার করেছে। তবে বাকী আসামীদের গ্রেফতারের জন্য তাদের পুলিশ তৎপর রয়েছে।