বাংলার কন্ঠ প্রতিবেদক \ দ্বীপ জেলা ভোলায় গাছ সংরক্ষনের মাধ্যমে বায়ুমন্ডলে অক্সিজেন বৃদ্ধিকরণ ও কার্বণ হ্রাসকরনের উদ্দ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে বাংলাদেশ সরকারের তত্বাবধানে রুপালী হেলথ্ কেয়ার ফাউন্ডেশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান ভোলা জেলায় গাছ সংরক্ষনের মাধ্যমে বায়ুমন্ডলে অক্সিজেন বৃদ্ধিকরণ ও কার্বণ হ্রাসকরনের প্রকল্পটি ব্স্তবায়ন কাজ শুরু করেছে।

রবিবার দুপুরে ভোলার বাংলাবাজারে প্রকল্পের জেলা কার্যালয় উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। রুপালী হেলথ্ কেয়ার ফাউন্ডেশনের  জেলা ব্যবস্থাপক জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, প্রকল্প পরিচালক এ্যাডভোকেট মো: জাহিদুর রহমান খান। এ সময় প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প পর্যবেক্ষক ড. মাহাবুব রহমান, খুলনা বিভাগীয় ব্যবস্থাপক মো: আমজাদ হোসেন, বরিশাল বিভাগীয় ব্যবস্থাপক মো: নিয়াজ হাসানসহ বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ ভোলা জেলার প্রায় সাড়ে ৩ শত নারী পুরুষ কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

প্রকল্প পরিচালক এ্যাডভোকেট মো: জাহিদুর রহমান খান জানান, এই প্রকল্পের মাধ্যমে জেলায় সরকারি গাছ ছাড়া সকল গাছ সংরক্ষণে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ভোলা জেলার ৬৮টি ইউনিয়নে তাদের কার্যক্রম চলবে। প্রত্যেক ইউনিয়নে ৩ জন করে মাঠ কর্মী কাজ করবে। ৪০ বছরের এই প্রকল্পে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে। ১ বছর থেকে  ১০ বছর মেয়াদী গাছ গননার আওয়াতায় এনে গাছ মালিককে গাছ না কাটার জন্য উদ্ধুদ্ধ করে তাদেরকে প্রকল্পের নিয়ম অনুসারে ভাতা দেয়া হবে বলে জানানো হয়। প্রথমে মাঠ পর্যায়ের কর্মীরা জেলায় বৃক্ষের সংখ্যা, জাত ও বয়স নির্ধারণ করবে। পরে গাছের মালিককে গাছের উপকারিতা তুলে ধরে গাছ সংরক্ষনে উৎসাহিত করা হবে। তিনি বলেন, যদি গাছ মালিকের বিশেষ প্রয়োজনে গাছ কাটতে হয়, সেক্ষেত্রে মালিককে গাছের মূল্য পরিশোধ করবে প্রকল্প। তবুও গাছ রক্ষা করা হবে।