বাংলার কণ্ঠ প্রতিবেদক : উপজেলা নির্বাচনের ৪র্থ ধাপে ভোলার লালমোহনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। ভোটার উপস্থিতি কম হলেও কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। উপজেলা প্রশাসন, ম্যাজিষ্ট্রেট, র‌্যাব, বিজিবির কড়া নজরধারীতে মোট ৮০ কেন্দ্রে ভোট নেওয়া হয়েছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ২৮,৪১৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীকের অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি অধ্যক্ষ একেএম নজরুল ইসলাম (আনারস) পেয়েছেন ১৭৩৬৩ ভোট। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবুল হাসান রিমন ২৮৬৭৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ফখরুল আলম হাওলাদার পেয়েছেন ১৬০১১ ভোট।

 



 

 

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাসুমা বেগম (হাঁস) ২২১৩৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি আফরোজা শিখা (কলস) পেয়েছেন ২১১১৭ ভোট। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা  ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার আমির খসরু গাজী এ তথ্য নিশ্চিত করেন। অপর দিকে তজুমদ্দির উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্থানীয় ভাবে প্রাপ্ত ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী স্বতন্ত্র মোশােরফ হোসেন দুলাল ২৫২৩৪ ভোট পেয়ে বেসরকাির ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফজলুল হক দেওয়ান পেয়েছেন ১৫০৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে মহিউদ্দিন পোদ্দার (তালা) ১৫ হাজার৩১৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি জিয়াউর রহমান পেয়েছেন ৯৮৫৪ ভোট। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফাতেমা সাজু (হাঁস) ১৬৯২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি কহিনুর বেগম শিলা (ফুটবল) পেয়েছেন ১২০৩৩ ভোট পেয়েছেন।

 

এছাড়া বিনা প্রতিন্ধিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ভোলা সদর উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী (নৌকা) মোঃ মোশারেফ হোসেন, দৌলতখান উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী (নৌকা) মনজুরুল আলম খান, মনপুরা উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনিত  প্রার্থী (নৌকা) সেলিনা আকতার চৌধুরী ও চরফ্যাশন উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোিনত প্রার্থী (নৌকা) জয়নাল আবেদিন আখন নির্বাচিত হয়েছে।