বাংলার কন্ঠ প্রতিবেদক \  বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ভোলা জেলা শাখার দ্বিতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে । শনিবার  সকালে ভোলা প্রেসক্লাবের হল রুমে এ বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ভোলা জেলা শাখার সভাপতি হোসনে আরা  বেগম চিনুর সভাপতিত্বে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় । এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভোলা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক রাখী দাশ পুরকায়স্থ, সাংগঠনিক সম্পাদক উম্মে সালমা, ভোলা সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর পারভীন আখতার ,সরকারি ফজিলাতুন নেসা মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন জাহাঙ্গির , চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক সফিকুল ইসলাম , সমাজ সেবক আনোয়ার হোসেন , হিউম্যান রাইটস ডিফেন্ডার ফোরামের ভোলা জেলা সভাপতি মোবাশ্বের উল্লাহ চৌধুরী , কেন্দ্রীয় মহিলা পরিষদ সদস্য পুষ্প চক্রবর্ত্রী  ।

এসময়  আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ভোলা জেলার সাধারন সম্পাদক জিনাত রেহানা, লায়লা আঞ্জুমান আরজু ,বিলকিস জাহান মুনমুন, এড্য.সাজেদা আখতার প্রমুখ ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু বলেন , নারীদের অধিকার নিশ্চিতে নারীদেরই ভুমিকা রাখতে হবে । কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য নারীর অধিকার খর্ব করতে আমাদের সমাজে   নারীরাই অনেক ক্ষেত্রে পুরুষের চেয়ে বেশি ভুমিকা রাখে। সংসারে মায়েরা মেয়ে সন্তানের চেয়ে সবকিছুতেই ছেলে সন্তানের অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে , আবার ছেলের বউ থেকে নিজের মেয়েকে বেশি গুরুত্ব দেয় । বর্তমান সময়ে যে সকল গৃহর্কমি নির্যাতনের ঘটনা ঘটছে তার প্রায় শতভাগই মহিলাদের দ্বারা ঘটে থাকে । নারীরা যদি নারীদের এই ধরনের অবজ্ঞা , অত্যাচার করে তাহলে সমাজে নারীদের পূর্ন অধিকার প্রতিষ্ঠ করা সম্ভব হবে না । তাই নারী সমাজের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষে নারীদের প্রতি নারীদের সহানুভুতিশিল হতে হতে হবে । পাশাপাশি নারীদের সচেতন হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। বাংলাদেশ সরকার নারী অধিকার প্রতিষ্ঠায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব আরোপ করছে। কারন জন সংখার অর্ধেক নারীদের উন্নয়ন ছাড়া জাতীর উন্নয়ন সম্ভব না ।

সম্মেলনে বক্তরা নারীদের সকল অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানিয়ে বলেন ধর্ম, রাষ্ট্র , সরকার  একজন নারীকে যে অধিকার দিয়েছে তা পুরোপুরি বাস্তবায়ন হচ্ছে না। নারীরা ধর্ম, রাষ্ট্র , সরকার কতৃক পদত্ত অধিকার থেকে পদে পদে বঞ্চিত হচ্ছে। এই অধিকার পূনঃ প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। পিতার সম্পত্তিতে কন্যার পাপ্ত অধিকার নিশ্চিত করতে হবে । হিন্দু ধর্মের পণ প্রথা আইন করে বন্ধ করতে হবে । যৌতুক ,নারী নির্যাতন , র্ধষন ,যৌন হয়রানীর কঠোর বিচার করতে হবে। মুসলিম নারীদের মত সকল ধর্মের নারীদের পিতার সম্পত্তিতে অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে । সকল র্ধমের নারীদের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে

 

সম্মেলন শুরুর আগে আগে বর্নাঢ্য র‌্যালি বের করে বোলা মহিলা পরিষদ । র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে প্রেসক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়।