হাসিব রহমান।। দ্বীপ জেলা ভোলায় প্রতিদিনই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৬ জন আক্রান্ত হয়ে জেলার বিভিন্ন উপজেলার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে ভোলায় রবিবার সকাল পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৩ জনে। এদের মধ্যে ১ জন ভোলায় আক্রান্ত হয়েছে বলে ডাক্তাররা আশঙ্কা করছেন।
ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে ভোলাবাসী ততই ডেঙ্গু নিয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছে। কারণ ঢাকা চট্রগ্রাম থেকে স্বজনরা বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে আর সেই সাথে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। এতদিন ভোলায় সনাক্ত হওয়া ডেঙ্গু আক্রান্তরা সবাই ঢাকা থেকে ভোলায় জ্বর নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু গতকাল এমন একজনকে সনাক্ত করা হয়েছে যিনি গত এক বছরেও ঢাকায় যাননি। এতে স্থানীয়দের মধ্যে শঙ্কা আরও বাড়ছে। এখন স্বাভাবিক জ্বর হলেও ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে রোগীরা ভীর করছেন। চাপ বেড়েছে বেসরকারি ডায়াগনেস্টিক সেন্টারগুলোতে। অপরদিকে এখনো ভোলা সদর হাসপাতাল ছাড়া অপর ৬ উপজেলায় ডেঙ্গু পরীক্ষার কিট আসেনি। ভোলায় হাসপাতালেও মাত্র ১২০টি কিট পাঠানো হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম।
ভোলার সিভিল সার্জন ডা: রথীন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, ভোলার হাপাতালগুলোতে এ পর্যন্ত ৩৩ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। তার মধ্যে সদর হাসপাতালে রয়েছে ৮ জন। চরফ্যাসন হাসপাতালে রয়েছে ৩ জন। তজুমদ্দিনে রয়েছে ১ জন। এছাড়া মনপুরা উপজেলায়তেও আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। তবে সিভিল সার্জন বলছে, তাদের পর্যাপ্ত ঔষধ রয়েছে।

এদিকে আক্রান্ত এসব রোগীর সকলেই ঢাকা থেকে এসে আক্রান্ত হলেও রবিবার ১ জন রোগী ভোলায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি হলেন সদর উপজেলার উত্তর ইলিশার গুপ্ত মুন্সি সাহাজি বাড়ির মো: হামিদ। তবে সিভিল সার্জন জানান, তারা এখনো এ বিষয়ে পুরো নিশ্চিত নন। আরো নিশ্চিত হতে ওই রোগীকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।
জেএস/০৪ জুলাই