হাসিব রহমান \ ভোলার মেঘনায় একটি জাহাজের ধাক্কায় সিমেন্টের কাচামালবাহী এমভি তানভির তাওসিব-২ নামক কোষ্টার জাহাজ ডুবে গেছে। তবে ওই জাহাজের চালকসহ ১২ জন উদ্ধার হওয়ায় কোন প্রাণহানীর ঘটনা ঘটেনি। এদিকে জাহাজ ডুবির ৩ দিন পরও বৃহস্পতিবার পর্যন্ত উদ্ধার কাজ শুরু হয়নি। গত মঙ্গলবার ২৭ আগষ্ট রাত ১১ টার দিকে ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা এলাকার বিরবির বয়া নামক মেঘনা নদীতে এই দুঘর্টনা ঘটে। এতে করে প্রায় ২০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে ভোলা থানায় জিডি করা হলে আজ বৃহস্পতিবার পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন।
ঢাকার পপুলার এন্টার প্রাইজের মো: তোফাজ্জলের মালিকানাধীন এমভি তানভির তাওসিব-২ জাহাজের মাষ্টার খায়রুর আলম জানান, গত ২৭ আগষ্ট চট্রোগ্রাম থেকে সিমেন্ট তৈরীর প্রায় ২২ শ টন কাঁচামাল নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিলো। রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নদীতে ভাটা চলে আসায় মেঘনা নদীর বিরবির নামক স্থানে নোঙ্গর করে রাখে। এ সময় সামনের দিক থেকে বসুন্ধরা ফুড-১ নামক খালি জাহাজ ধাক্কা দেয়। এতে করে এমভি তানভির তাওসিব জাহাজের সামনের অংশ নিয়ে ফেটে পানি উঠে ডুবে যায়। এই সময় জাহাজের স্টাফরা বাঁচার জন্য ডাক চিৎকার করলে বসুন্ধরা ফুড-১ জাহাজটি উদ্ধার কাজে এগিয়ে আসেনি। পরে অপর একটি এমভি সানিলা তাদের উদ্ধার করে। এছাড়া ডুবে যাওয়া জাহাজের মালিক পক্ষ উদ্ধার কাজ দ্রæত শুরু করবে বলেও জানান মাষ্টার খায়রুর আলম।
ভোলা মডেল থানার ওসি মো: ছগির মিয়া জানান, বসুন্ধরা ফুড-১ জাহাজ ডুবির ঘটনায় বুধবার ভোলা থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশ তদন্ত করছে। এ এসআই সুজন মাঝির নেতৃত্বে দুপুরে পুলিশের একটি টিম ঘটনা স্থল পরিদর্শনে যায়।