বাংলার কন্ঠ ডেস্ক  : ২০০১ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক। তারপর থেকে ন্যাশনাল ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) কখনও ঢাকার বাইরে খেলেননি মোহাম্মদ আশরাফুল। তবে এখন দিন বদলেছে। এক সময়ের মাঠ কাঁপানো তারকার চাহিদা আর আগের মতো নেই।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ঢাকা ডিভিশনেই নিয়মিত খেলেছেন আশরাফুল। এনসিএলে খেলেছেন ঢাকা মেট্রোর হয়ে। তবে এবার আর আশরাফুলকে রাখতে চায় না ঢাকা।

আশরাফুল চেয়েছিলেন সিলেট বিভাগের হয়ে খেলতে। কিন্তু তারাও জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ককে নিতে রাজি নয়। অবশেষে তাকে নিয়েছে বরিশাল বিভাগ।

ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ থাকার পর ২০১৭ সালে আবারও ঘরোয়া লিগে ফেরেন আশরাফুল। তবে বয়স ৩৫ পেরিয়েছে। ফিটনেস আর আগের মতো নেই।

বিসিবি সম্প্রতি ক্রিকেটারদের ফিটনেস পরীক্ষার বিপ টেস্টের মানদণ্ড ‘১১’ নির্ধারণ করে দিয়েছে। আশরাফুলসহ সিনিয়র কয়েকজন সেটায় পাশ করতে পারেননি। আশরাফুল করেন ৯.৫। যদিও তিনি এটা বাড়ানোর জন্য সুযোগ পাবেন। সেজন্য সামনের দিনগুলোয় কঠোর পরিশ্রম করতে হবে তাকে। ঢাকা রাখবে না সিলেটও চায় না, নতুন ঠিকানায় আশরাফুল

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০২ পিএম, ০২ অক্টোবর ২০১৯

ঢাকা রাখবে না সিলেটও চায় না, নতুন ঠিকানায় আশরাফুল

২০০১ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক। তারপর থেকে ন্যাশনাল ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) কখনও ঢাকার বাইরে খেলেননি মোহাম্মদ আশরাফুল। তবে এখন দিন বদলেছে। এক সময়ের মাঠ কাঁপানো তারকার চাহিদা আর আগের মতো নেই।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ঢাকা ডিভিশনেই নিয়মিত খেলেছেন আশরাফুল। এনসিএলে খেলেছেন ঢাকা মেট্রোর হয়ে। তবে এবার আর আশরাফুলকে রাখতে চায় না ঢাকা।

আশরাফুল চেয়েছিলেন সিলেট বিভাগের হয়ে খেলতে। কিন্তু তারাও জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ককে নিতে রাজি নয়। অবশেষে তাকে নিয়েছে বরিশাল বিভাগ।

ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ থাকার পর ২০১৭ সালে আবারও ঘরোয়া লিগে ফেরেন আশরাফুল। তবে বয়স ৩৫ পেরিয়েছে। ফিটনেস আর আগের মতো নেই।

বিসিবি সম্প্রতি ক্রিকেটারদের ফিটনেস পরীক্ষার বিপ টেস্টের মানদণ্ড ‘১১’ নির্ধারণ করে দিয়েছে। আশরাফুলসহ সিনিয়র কয়েকজন সেটায় পাশ করতে পারেননি। আশরাফুল করেন ৯.৫। যদিও তিনি এটা বাড়ানোর জন্য সুযোগ পাবেন। সেজন্য সামনের দিনগুলোয় কঠোর পরিশ্রম করতে হবে তাকে।